বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ || ১০ বৈশাখ ১৪৩১ || ১২ শাওয়াল ১৪৪৫

অপরাজেয় বাংলা :: Aparajeo Bangla

‘পাঠান’ নিয়ে মধ্যপ্রদেশে উত্তপ্ত পরিস্থিতি

এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্ক

০৯:৫৮, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩

আপডেট: ১৪:৪৬, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩

৩৬৪

‘পাঠান’ নিয়ে মধ্যপ্রদেশে উত্তপ্ত পরিস্থিতি

সবেমাত্র তিন দিন হলো ‘পাঠান’ মুক্তি পেয়েছে। একদিকে যেমন ছবি ঘিরে দর্শকের উন্মাদনার শেষ নেই, অন্যদিকে কিছু কিছু জায়গায় বিক্ষোভ হচ্ছে। এই বিক্ষোভের নেতৃত্ব দিচ্ছে মূলত কট্টরপন্থী হিন্তু সংগঠনগুলো। তাদের পক্ষ থেকে প্রেক্ষাগৃহ জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকি পাওয়া গেছে।

ফলে অনেক জায়গাতেই পুলিশি প্রহরায় চলেছে ‘পাঠান’র শো। তবে মধ‍্যপ্রদেশের ইন্দোরে পুলিশের হাতের বাইরে চলে যায় পরিস্থিতি। প্রেক্ষাগৃহের বাইরে ইসলামের নবীর হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর নামে আপত্তিকর স্লোগান দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বজরং দলের বিরুদ্ধে। পাল্টা বিতর্কিত ‘সর তন সে জুদা’ স্লোগান দেয় স্থানীয় মুসলিম বাসিন্দারা। পরিস্থিতি দাঙ্গার রূপ নেওয়ার উপক্রম হলে পুলিশ নামে এলাকায়।

ওই ঘটনার পরেই এক মুসলিম ধর্মীয় নেতা খলিল-উর-রহমান বিস্ফোরক মন্তব‍্য করেছেন শাহরুখ খানের ব‍্যাপারে। তার বক্তব‍্য, ‘পাঠান’ ছবিতে ইসলাম সম্পর্কিত কিছু নেই। বলিউডও মুসলিম নয়। ডানপন্থী সংগঠনগুলোকে তার সোজাসুজি পরামর্শ, যদি সত‍্যিই তারা শাহরুখের ছবির বিরুদ্ধে হয়, তাহলে অভিনেতার বাড়িতে গিয়ে তাকে গুলিতে উড়িয়ে দিক।

ওই মুসলিম ধর্মীয় নেতার স্পষ্ট বক্তব‍্য, শাহরুখ খানের সঙ্গে যা খুশি তাই করুক। কিন্তু মহানবীর (স.) ব‍্যাপারে কেউ আপত্তিকর মন্তব‍্য করলে তা বরদাস্ত করা হবে না। ইন্দোরে দাঙ্গার পরিস্থিতি সম্পর্কে প্রাক্তন বিজেপি নেত্রী নুপূর শর্মার প্রসঙ্গ তুলে ওই ব‍্যক্তি দাবি করেন, তিনিই এই সব কিছুর জন‍্য দায়ী। সেসময়ে নুপূর শর্মাকে গ্রেফতার করা হলে আজ এই পরিস্থিতি তৈরি হত না। সেই সঙ্গে তিনি এ-ও বলেন, যারাই পয়গম্বরের নামে আপত্তিকর মন্তব‍্য করবে সবাইকে আইনের আওতায় গ্রেফতার করা উচিত।

বুধবার ইন্দোরে খণ্ডযুদ্ধের পরিস্থিতি হয় বজরং দলের সদস্য এবং স্থানীয়দের মধ্যে। স্থানীয় তথা ছবি দেখতে আসা দর্শকদের অভিযোগ, মহানবীকে (স.) অসম্মান করে স্লোগান দেয় বজরং দল। এরপরেই পালটা সুর চড়ায় স্থানীয়রা। স্থানীয় মুসলিম বাসিন্দাদের বিরুদ্ধে বিতর্কিত ‘সর তন সে জুদা’ স্লোগান দেওয়ার গুরুতর অভিযোগ ওঠে। দাঙ্গা পরিস্থিতি তৈরি হয়ে যায় এলাকায়। তড়িঘড়ি নামানো হয় পুলিশ।

 

Kabir Steel Re-Rolling Mills (KSRM)
Rocket New Cash Out
Rocket New Cash Out
bKash
Community Bank